আরিফুর রহমান মানিক ছাতক, (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি। )
২৩ মে ২০২৪, ১:৪১ অপরাহ্ন
অনলাইন সংস্করণ

ছাতক বিদ্যুৎ (পিডিবি) অফিসের অবহেলায় বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে ঝলছে গেছে মোস্তকিমের সারা শরীর

ছাতক বিদ্যুৎ উন্নয়ন ও বিক্রয় বিতরন বিভাগ কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতে একের এক বেসরকারী বিদ্যুৎ শ্রমিকরা আহত ও মারা যাচ্ছেন। গত ৮ মে বিদ্যুৎ অফিসের কাজে সূফিনগর এলাকায় বিদ্যুতের খুটিতে ১১কেভি লাইনের কাজ করতে গিয়ে ৩৩ কেভি লাইনে শর্ট খেয়ে খুটিতে আটকে যায় বেসরকারী বিদ্যুৎ শ্রমিক মুস্তাকিম।

চিকিৎসারত মুস্তকিম

বর্তমানে মুস্তাকিম রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তার পুরো শরির ঝলসে গেছে, অবস্থা আশংকাজনক। সে একজন মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। মোস্তাকিম খুটিতে কাজ করার আগে ১১ কেভি লাইন অফ করলেও ৩৩কেভি লাইন অফ করে নি অফিস কতৃপক্ষ।

এভাবে একের পর এক বেসরকারী বিদ্যুৎ শ্রমিক দূর্ঘটনার শিকার হওয়ার বিষয়টি বিদ্যুৎ অফিসে দায়িত্বহীনতাকে দায়ি করছেন সাধারন মানুষ। তাদের গাফিলতির কারণে মুস্তাকিম মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। মুস্তাকিম ছাড়াও উপজেলা আরোও বেশ কয়েকজন বেসরকারী বিদ্যুৎ শ্রমিকরা অফিসের গাফিলতির কারণে মারা গেছেন। এনিয়ে বিভিন্ন প্রত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পরও কোন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করতে দেখা যায়নি অফিস কতৃপক্ষকে।

সারা শরীর ঝলছে যাওয়া মুস্তাকিম

 

কয়েক বছর ধরে একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে বিদ্যুৎ অফিস। সিন্ডিকেটের নেতৃত্ত্বে অফিসের সকল অনিয়ম, ঘুষসহ নানান দুর্নীতি দামাচাপা দেওয়া হচ্ছে বলে, বিদ্যুৎ সেবা গ্রহনকারীরা জানায়।

জানাযায়, ছাতক বিদ্যুৎ উন্নয়ন ও বিক্রয় বিতরন বিভাগে দীর্ঘদিন ধরে বেসরকারী বিদ্যুৎ শ্রমিক হিসাবে কাজ করছেন মোস্তাকিম আহমদ। তিনি কালারুকা ইউনিয়নের রায়সন্তোষপুর গ্রামের শাহ আব্দুল কাদিরের পুত্র ও মুক্তিযোদ্ধা শাহ আব্দুর রহমানের নাতি। গত ৮ই মে কালারুকা ইউনিয়নের সুফিনগর এলাকায় বিদ্যুতের খুটিতে কাজ করতে যান মোস্তাকিম। বিদ্যুতের খুটিতে উঠার আগে বিদ্যুতের লাইন বন্ধ করে একটি খুটিতে কাজ করছিলেন। কাজ করা অবস্থায় হঠাৎ বৈদ্যুতিক শর্ট খেয়ে সে খুটিতেই আটকে যায়। পরে আবার লাইনটি তাৎক্ষনিক বন্ধ করে খুটি থেকে মুমুর্ষ অবস্থা উদ্ধার করে দ্রুত সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তাকে নিয়ে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য আশংকাজনক অবস্থায় রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

লাইন বন্ধ থাকা সত্ত্বে কিভাবে সে বৈদ্যুতিক শর্ট খেল?
মোস্তাকিম যে খুটিতে কাজ করছিলেন সেই খুটির ১১কেভি লাইনে সাট ডাউন নেয়া হলেও ৩৩ কেভি লাইন সাট ডাউন (বন্ধ) করেননি অফিস কর্তৃপক্ষ। তাই সে বৈদ্যুতিক শর্ট খেয়ে ঝলছে গেছে উপস্থিত প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

এখানে এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে,
মুস্তাকিম ছাড়াও ছাতক উপজেলার বিদুৎ উন্নয়ন বিক্রয় ও বিতরন বিভাগের উদাসীনতার কারণে পৌর শহরের বাগবাড়ি গ্রামের মনু মিয়ার পুত্র মোহন মিয়া। উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের বেতুরা গ্রামের শুকুর আলীর পুত্র ফারুক মিয়া। পৌর শহরের বাগবাড়ী- ইটখলা এলাকার মৃত মজর আলীর পুত্র শামীম আহমদ। ইসলামপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর-গনেশপুর গ্রামের আমিন উদ্দিনের পুত্র শাহ জামাল। বিদ্যুৎ শ্রমিক শাহজাহান মিয়া সহ আরোও অনেকেই পঙ্গু হয়েছেন ও প্রাণ দিতে হয়েছে।

একের পর এক বেসরকারী বিদ্যুৎ শ্রমিক দূর্ঘটনার শিকার হওয়ায় বিষয়টিকে অত্র এলাকার সচেতন মহল কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদাসীনতাকে দায়ি করছেন। তাদের উদাসীনতার কারণে আজ মুস্তাকিম মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
সহকারী প্রকৌশলী সুমন চৌধুরী, লাইন সহকারী মোস্তাফিজ ও ছোট জাকির
এ বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য বিভিন্ন অসদুপায় অবলম্বন করছেন বলে জানা যায়।

আরোও জানাযায়, কয়েক বছর ধরে একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে বিদ্যুৎ অফিস। এই সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অনিয়ম, মিটার চুরি, ঘুষসহ নানান দুর্নীতি চলছে।

২০২২ সালের ৮ আগস্ট অনিয়ম, মিটার চুরি, ঘুষসহ নানান দুর্নীতির অভিযোগে ঢাকার বিউবো কর্মচারী পরিদপ্তরের উপপরিচালক রেহানা আক্তার স্বাক্ষরিত এক আদেশে এই অফিসের তিন কর্মচারীকে বদলি করা হলেও সিন্ডিকেট এখনো বহাল তবিয়তে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

সহকারী প্রকৌশলী সুমন চৌধুরী, লাইন সহকারী মোস্তাফিজ, ছোট জাকির এর নেতৃত্বে অফিসের সকল অনিয়ম, ঘুষসহ নানান দুর্নীতির মূলহোতা বলে জানান ভুক্তভোগী বিদ্যুৎ সেবা গ্রহণকারী গ্রাহকেরা।

এবিষয়ে মুঠোফোনে জানতে সহকারী প্রকৌশলী সুমন চৌধুরী বলেন আমার উর্ধতন কর্মকর্তার কাছে এবিষয়ে আফিসে এসে জেনে নিন, তিনি আরো বললেন আমি এসব বিষয়ে জানিনা এবং আমি কোন সিন্ডিকেটের সাথে জড়িত না। লাইনম্যান সাট ডাউন নিয়েছে ১১ কেভির: ৩৩ কেভির নিয়েছে কি-না আমার জানা নেই।
আপনি কি এ দায় এড়াতে পারেন তার কাছে জানতে চাইলে তিনি আবারও বলেন আমার উর্ধতন কর্মকর্তার অনুমতি ছাড়া আমি আর কিছু বলতে পারবো না।

Exen Pdb Chattak (ত্বথ্যানধায়ক প্রকৌশলী)’র মুঠোফোন কল দিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন মুস্তাকিম আমাদের কোন কাজে পোলে উঠে নাই সে আমাদের কিছু না জানিয়ে তার ব্যাক্তিগত কাজে পোলে উঠেছিল এবলে সে মিটিং এ আছে বলে তড়িঘড়ি করে মোবাইল ফোন কেটে দেয়।

Facebook Comments Box

মন্তব্য করুন

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

মিঠা পানির মাছ আহরণে চীনকে টপকে বাংলাদেশ বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে উন্নীত: মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

ন্যায্যতার উপর ভিত্তি করে ভূমিসেবা দিতে এসিল্যান্ডদের নির্দেশ দিয়েছেন ভূমিমন্ত্রী

মানুষ মানুষের জন্য এতিম অসহায় মেয়ের বিয়ের খরচ দিলেন হৃদয়বান মানুষ

“উন্নয়নের গতি থামিয়ে রাখার সুযোগ নেই”- স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচনে প্রধান শিক্ষ‌কের বাধা

ডাকাতির প্রস্তুতির সময় প্রাইভেটকার-অস্ত্রসহ বগুড়া-সৈয়দপুরের চারজন গ্রেফতার

উদ্যোক্তা ও কর্মজীবী নারীদের যাতায়ত নিরাপদ করতে প্রাইম ব্যাংক ও বি-ট্র্যাক সলিউশনস লিমিটেডে’র মধ্যে চুক্তি

উল্লাপাড়ায় অসহায় ও দুস্থদের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ করলেন যুবলীগ নেতা সোহেল

ছাতক বিদ্যুৎ অফিসে সহকারী প্রকৌশলী সুমন চৌধুরী নেতৃত্বে চলছে অনিয়ম দূর্নীতি

সেই দিন আর বেশী দুরে নেই যেদিন বাংলাদেশে একটি পরিবারও গৃহহীন ভূমিহীন থাকবে না -প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

১০

ব্রিটিশ এশিয়ান ট্রাস্ট ও সাজিদা ফাউন্ডেশনকে তহবিল দেবে প্রাইম ব্যাংক পিএলসি

১১

প্রাইম ব্যাংক পিএলসিথর সাথে পেরোল চুক্তি করলো এবি আর-মাসাফি গ্রুপ

১২

বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রশ্নে আমৃত্যু আপসহীন মোহাম্মদ নাসিম

১৩

বাংলাদেশে ওয়াই-ফাই ৭ নিয়ে এলো হুয়াওয়ে

১৪

শাহজাদপুর উপজেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি বাবলা আর নেই

১৫

উল্লাপাড়া রেলওয়ে ওভারপাসের কাজ প্রায় শেষ, উদ্বোধনের অপেক্ষা

১৬

উল্লাপাড়ায় অসুস্থ ও দুস্থদের মাঝে এমপি শফিকুল ইসলামের চেক বিতরণ

১৭

শাহজাদপুরে প্রধান মন্ত্রীর ঈদ উপহার ভিজিএফ চাল পাচ্ছে প্রায় ৮৫ হাজার পরিবার

১৮

উল্লাপাড়ায় নির্বাচিত জনপ্রতিনিদের দায়িত্বভার গ্রহন – ফুল দিয়ে বরণ

১৯

নড়াইলে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান উজ্জ্বল শেখের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ ও মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত

২০